Travel

ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণ খরচ কত – ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণ প্যাকেজ

আজকে আমরা এই পোস্টটি আলোচনা করতে চলেছি ইন্দ্রোনেশিয়া ভ্রমণ খরচ নিয়ে। এখান থেকে আপনারা জানতে পারবেন।ইন্দ্রোনেশিয়ায় ভ্রমণে যেতে আপনাকে কত টাকা খরচ করতে হবে। এবং কিভাবে আপনি ইন্দোনেশিয়ায় ভ্রমণ করতে পারবেন,,, সে সকল প্রসেস সম্পর্কে।

ইন্দোনেশিয়া পৃথিবীর একটি সৌন্দর্যময় দেশ যে দেশে মানুষ সাধারণত ইন্দোনেশিয়ার সৌন্দর্য দেখতে গিয়ে থাকে। ইন্দ্রোনেশিয়ার একটি জনপ্রিয় সৌন্দর্যের জায়গা হল বালি দ্বীপ। তাছাড়া ইন্দোনেশিয়ায় অনেক রকম দ্বীপ আছে যেগুলো দেখতে অনেক সুন্দর হয়ে থাকে এছাড়াও আরো সুন্দর্য দেখতে ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ গিয়ে থাকে। অন অ্যারাইভাল ভিসার মাধ্যমে বর্তমানে আপনি খুব কম খরচে ইন্দোনেশিয়া ঘুরে আসতে পারবেন।

কেন ইন্দোনেশিয়াতে ভ্রমণ করবেন?

ইন্দ্রোনেশিয়া সকল ট্যুরিস্টদের জন্য একটি আগ্রহের এবং আকাঙ্ক্ষার দেশ। যেখানে অনেক সুন্দরযে ঘেরা প্রকৃতিতেই। তাই এদেশে প্রচুর টুরিস্ট গিয়ে থাকে শুধুমাত্র ইন্দোনেশিয়ার সৌন্দর্য উপভোগ করতে। এখানে অনেক মানুষ অফিসিয়াল ভাবে, অথবা হানিমুনেও গিয়ে থাকে। কেননা এই অদ্ভুত সুন্দর জায়গা গুলো মানুষের মনে এক আনন্দের জন্ম দেয়।

এখানে রয়েছে আরো আকর্ষণীয় অনেক বিচ। তাছাড়াও আরো অনেক সৌন্দর্যে ঘেরা অনেক শপিং মল । তাছাড়া এখানকার পরিবেশের সঙ্গে মিশতে টুরিস্টরা বেশি গিয়ে থাকেন।

ইন্দ্রোনেশিয়া ভ্রমণ প্ল্যান:

আপনি যদি ইন্দ্রোনেশিয়া য় ভ্রমণে যেতে চান তাহলে আপনাকে সর্বনিম্ন এক সপ্তাহ হাতে সময় নিতে হবে কেননা আপনি যদি এর থেকে কম সময়ে নেন তাহলে সেখানকার অনেক সুন্দর সুন্দর ইমপোর্ট্যান্ট জায়গা গুলো মিস করতে পারে।

তাই ইন ইন্দোনেশিয়ায় ট্যুরে যাবার আগে ভালোভাবে একটু প্ল্যানিং করে নেয়া উচিত। একটু বেশি সময় নিয়ে যাওয়াটাই ভালো। সে ক্ষেত্রে আমার আপনার ভ্রমণটি আরো সুন্দরভাবে করতে পারবেন।

ইন্দোনেশিয়া যাত্রা পথ:

আপনি এয়ার এশিয়ার মাধ্যমে সিঙ্গাপুর থেকে সরাসরি বালিতে যেতে পারবেন। যার ফলে আপনাকে কুয়ালালামপুর এয়ারপোর্টে দীর্ঘ সময় বসে থাকতে হবে না। আর আপনি যদি ঢাকা থেকে যেতে চান তাহলে মালিন্দো এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে আপনি খুব কম টাকায় কুয়ালালামপুর পৌঁছাতে পারবেন। তবে আপনি যদি মালিন্দ এয়ারলাইন্স ব্যতীত অন্য কোন এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে যেতে চান। তাহলে সেই ক্ষেত্রে যাত্রাপথ কিছুটা ভিন্ন হতে পারে।

ইন্দোনেশিয়া ইমিগ্রেশন প্রসেস:

ইন্দ্রোনেশিয়া প্রসেস এ কেমন কোনরকম অসুবিধা পড়তে হয় না। আপনি যদি শুধু পাসপোর্ট এবং রিটার্ন টিকেট দেখান তাহলেই তাড়াতাড়ি আপনাকে সেল দিয়ে দেবে। আপাতত ২০২২ সাল পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়া ভ্রমন্ ফি দিতে হয় না। নুসা দোয়া বিচ, এলাকা ব্লো এলাকা, কৃষ্ণা শপিং মল, বিচওয়ার্ শপিংমল, সাউথ বালি বিচ, কোটা বিচ, সেমিনায়েক, পটেট হেড, সুপার মারকেট, ডিসকভারি শপিংমল।

এই সমস্ত স্থানগুলোতে আপনি ঘুরতে কোনরকম ফি দেয়া লাগবেনা। আপনি সমস্ত জায়গা গুলোতে ফ্রিতে চলাফেরা করতে পারবেন এবং সুন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন।

ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণ খরচ কত:

ইন্দোনেশিয়া ভ্রমন ক্ষেত্রে আপনাকে খুব একটা খরচ করতে হবে না। কেননা আপনি খুব কম খরচেই এই সকল জায়গাগুলো থেকে ঘুরে আসতে পারবেন। এখানে ঘুরে আসতে আপনার যে সকল খরচ গুলো সেই সকল খরচ গুলো খুব কমেই হয়ে যাবে। মালিন্দ এয়ারলাইন্সের জন্য আপনাকে ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকার মতন খরচ করতে হবে যা অন্যান্য এয়ারলাইন্স এর তুলনাই অনেক কম।

এবং সেখানকার হোটেলগুলোতে থাকতে প্রতি রাত পতি আপনাকে দুই থেকে তিন হাজার টাকার মতন দিতে হবে। এবং একজন ব্যক্তির খাবারের জন্য এক থেকে দুই হাজার টাকার খরচ হবে যা আপনার প্রয়োজনের মধ্যেই। এর বাইরে আপনি আপনার আনুষঙ্গিক যে খরচ গুলো সেগুলো বহন করতে হবে। এই কাজ করলো আপনি আপনার ইচ্ছামতন করতে পারবেন।

ইন্দ্রোনেশিয়া হোটেল ভাড়া:

ইন্দোনেশিয়া কি আপনি যদি ফাইভ স্টার হোটেল গুলোতে থাকতে চান তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনাকে দুই থেকে তিন হাজার টাকার মতো দিতে হবে। যা ফাইভ স্টার হোটেল অনুযায়ী অনেকটাই কম। এর থেকেও একটু ভালো মানের হোটেলে উঠতে গেলে আপনার খরচটা আরেকটু বেশি হতে পারে তবে এর মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকাটাই ভালো।

আশা করছি এ সকল তথ্যগুলো আপনারা সহজেই বুঝতে পেরেছেন। তাই ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণে আর কোনো রকম ঝামেলা হবে না বলে মনে করছি।

Related Articles

Back to top button
Close