Travel

ভিজিট ভিসায় গিয়ে কি আমেরিকায় থেকে যেতে পারবেন জেনে নিন

আজকে আমরা কথা বলবো আমেরিকার ভিজিট ভিসা নিয়ে। আপনাদের অনেকের মনেই অনেক প্রশ্ন থাকে। যেমন আমেরিকায় ভিজিট ভিসায় গিয়ে কি থেকে যাওয়া যায়। বা এরকম জাতীয় আরো অনেক প্রশ্ন ঘোরাঘুরি করে আপনাদের মাথায়। তবে আজকে আপনারা আমাদের এই আর্টিকেল থেকে এই সকল প্রশ্নের উত্তর খুব সহজেই খুঁজে পাবেন। কেননা আমরা এয়ারটেল প্রকাশ করেছি আমেরিকান ভিজিট ভিসার মাধ্যমে সেখানে কতদিন থাকতে পারবেন। 

ভিসার মেয়াদ এর চেয়েও বেশি দিন থাকতে হলে আপনাকে কি কি পদক্ষেপ নিতে হবে। এছাড়া কত টাকা খরচ হবে এই সকল অজানা তথ্যগুলো আমরা এই আর্টিকেলে প্রকাশ করছি। যা থেকে খুব সহজেই জেনে নিতে পারবেন। বর্তমানে আপনি আমেরিকায় যাওয়ার জন্য বাংলাদেশ থেকেই ভিসা করতে পারবেন। তবে আপনাকে একটু কঠিন পথ অবলম্বন করতে হবে। একটু কষ্টসাধ্য হলেও আপনি আমেরিকার ভিজিট ভিসা পেয়ে যাবেন।

ভিজিট ভিসাটি হাতে পাওয়ার পর অনেক কার্যক্রম আছে। যেগুলো সম্পূর্ণ করে আপনি আমেরিকায় যেতে পারবেন। এছাড়াও অনেক ইন্টারভিউ অনেক জিজ্ঞাসাবাদ ছাড়া আরও পরীক্ষা দিতে হবে আপনাকে আমেরিকা যেতে হবে। অবশ্যই সমস্ত ভাইবা পরীক্ষায় যদি আপনি ঠিকঠাকভাবে পার করতে পারেন। তাহলে আমেরিকায় প্রবেশ করতে পারবেন।

তবে আপনার বিষয়ে তাদের ভালোভাবে বুঝতে হবে আপনি কেন আমেরিকায় যাচ্ছেন বা কি উদ্দেশ্যে এই সমস্ত এই সমস্ত কার্যক্রম গুলো তাদের ভালোভাবে বুঝতে হবে। এবং আপনি যদি ভিজিট ভিসাটি পাউয়া মাত্রই আমেরিকায় যাবার চেষ্টা করেন। তাহলে আপনার আমেরিকায় যাওয়াটা বরাবরের মতোই বন্ধ হয়ে যেতে পারে। সবকিছু ফাইনাল হবার পরেই আমেরিকা যাওয়ার জন্য চেষ্টা করবেন।

ভিজিট ভিসায় আমেরিকাতে থাকা যায় কি:

আপনারা অনেকে হয়তো ভেবে থাকেন ভিজিট ভিসার মাধ্যমে আমেরিকায় গিয়ে সেখানে পার্মানেন্ট হবে থেকে যাবে। তবে আপনারা যদি সত্যি এরকম কিছু ভেবে থাকেন তাহলে জেনে রাখেন আপনাদের এই ভাবনাটা সম্পূর্ণটাই ভুল একটি সিদ্ধান্ত যা কখনোই বাস্তবায়ন হবে না। কেননা একটি ভিজিটেশন মাধ্যমে সেই ভিসাটি যতদিন মেয়াদ থাকে ঠিক ততদিন আপনি আমেরিকায় থাকতে পারবেন যদি আপনার ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তবে আপনাকে দেশে ফিরে আসতে হবে।

কেননা আপনি যখন ভিসাটি করবেন সেই ভিসাটিতে  উল্লেখ থাকবে আপনি কি কাজের জন্য আমেরিকায় যাচ্ছেন। এবং কতদিন সেখানে থাকতে পারবেন।কত টাকা বেতন পাবেন না সে কাজের ফলে। এই সমস্ত তথ্য গুলো একটি ভিসায় এই সকল ডিটেলস গুলো দেয়া থাকে। তাই আপনি চাইলেই কখনোই পারবেন না আমেরিকায় ভিজিট ভিসার মাধ্যমে পার্মানেন্ট ভাবে থাকতে। তবে আপনি যদি আমেরিকায় পার্মানেন্ট ভাবে থাকতে চান। তাহলে আপনাকে অন্য পদক্ষেপ অবলম্বন করতে হবে। যা ভিজিট ভিসার সাথে কোন রকম সম্পর্কিত নয়।

আমেরিকা ভিজিট ভিসার মাধ্যমে কাজ:

একটি ভিজিট ভিসার মাধ্যমে যে কাজগুলো কথা উল্লেখ আছে এবং যতদিন মেয়াদ আছে। ততদিন পর্যন্ত আপনি সে কাজগুলো করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার কাজে কোন রকম বাধা বিঘ্ন ঘটবে না। ভিজে পিছে কে আপনি যদি আমেরিকায় কোনরকম কাজে নিয়োজিত হতে চান। বা থেকে যেতে চান। তাহলে সেখান থেকে নতুন করে আপনাকে আরো একটি ভিসার আবেদন করতে হবে। সেই ভিসাটি হল ওয়ার্ক পারমিট ভিসা।

আপনাকে নতুন করে আবার ওয়ার্ক পারমিট ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। এবং আপনি যদি এই ভিসার যোগ্য হয়ে ওঠেন। তবে আপনি সেখানে ওয়ার্ক পারমিট ভিসার মাধ্যমে থাকতে পারবেন। তবে ওয়ার্ক পারমিট ভিসাটি সম্পূর্ণভাবে হাতে পাওয়া অনেকটাই কঠিন একটা ব্যাপার। তাই আপনাকে এর জন্য অনেক রকম পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। এবং ধৈর্য ধরে বসে থাকতে হবে এই বিচার জন্য। কেননা আপনি এই ওয়ার্ক পার্মার বিষয়টি খুব সহজেই হাতে পাবেন না।

তো আপনার হয়তো এবার ক্লিয়ার হতে পেরেছেন। আমেরিকাতে ভিজিট ভিসার মাধ্যমে আপনি শুধুমাত্র যে কদিন মেয়াদ আছে সে কয়দিন থাকতে পারবেন এর বেশি নয়। তাই এই সমস্ত ভুল ভাবনা গুলো পরবর্তীতে আর আসবে না বলে মনে করছে।

Tags

Related Articles

Back to top button
Close