Earn Money

ছাত্রজীবনে আয় করার সেরা কিছু উপায়

একটি মানুষের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময় ছাত্র জীবন। ছাত্রজীবনে আপনি আপনার ভবিষ্যতের পথ তৈরি করতে পারবেন যার কারনে আপনার পড়াশোনার পাশাপাশি টাকা আয় করা অত্যন্ত জরুরি।

তবে মনে রাখবেন টাকা আয় করার সময় আপনার পড়াশুনা যেন কোনো ক্ষতি না হয়। আজকে আমরা আপনাদের বেশ কিছু উপায় বলব যা দিয়ে আপনি ছাত্রজীবনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন পাশাপাশি আপনার পড়াশোনায় তা কোনো প্রভাব ফেলবে না।

ছাত্রজীবনে আয় করার সেরা কিছু উপায়

ছাত্র জীবনে আমরা সকলেই আয় করতে চাই বিশেষ করে মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানেরা তাদের নিজেদের খরচ চালানোর লক্ষ্যেও আয় করতে চাই। তবে অনেকেই রয়েছে তারা জানেনা কিভাবে ছাত্রজীবন থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব কারণ তারা ভাবে যে একজন ছাত্র হিসেবে সারাদিন আমাকে পড়াশুনার মধ্যে ব্যস্ত থাকতে হবে। এ অবস্থা থেকে বের হওয়ার জন্যই আমরা এখানে বেশ কিছু তথ্য উপস্থাপন করলাম যা ব্যবহার করে আপনি ছাত্রজীবনে আয় করা শিখতে পারবেন।

Screenshot-2022-02-19-at-11-33-06-AM

অনলাইন বা অফলাইন টিচিং

আপনি যদি ছাত্র জীবনে কোন বিষয় নিয়ে খুব বেশি দক্ষ হয়ে থাকেন বিশেষ করে বিজ্ঞান ও গণিত বিষয়ে যদি আপনার দক্ষতা ভালো হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য টিউশনি অন্যতম একটি মাধ্যম হতে পারে। আপনার যদি ইংরেজি গণিত ও বিজ্ঞান শাখার বিষয়গুলোতে ভালো ধারণা থেকে থাকে এবং আপনি ছাত্র অবস্থায় একজন ভালো বিদ্যালয় অধ্যায়ন করে থাকেন তাহলে আপনার জন্য অনলাইন বা অফলাইনে টিচিং অন্যতম উৎস।

ছাত্রজীবনের টিউশনি করার লক্ষ্যে আপনাকে প্রথমে একটি ব্যানার তৈরি করা লাগবে যা অনলাইন ও অফলাইনে এর মাধ্যমে প্রকাশ করতে পারেন। বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ রয়েছে যে সকল গ্রুপে আপনি আপনার ছাত্রজীবনে তথ্যসম্বলিত যে যে বিষয় পড়াতে চান তা উল্লেখ করেন তাহলে অভিভাবকরা আপনার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করবে।

তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির ছোঁয়া কারণে বাংলাদেশে বর্তমানে বিভিন্ন অনলাইন টিউশনি টিচিং সেন্টার রয়েছে যে সকল জায়গাতে আপনি ভাইবার প্রদানের মাধ্যমে আপনার পছন্দের বিষয়ে টিউশনি করাতে পারবেন। এরকম বেশ কিছু ওয়েবসাইট নাম নিচে প্রদান করা হল যে সকল ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে। আপনি আপনার প্রোফাইল তৈরি করবেন এবং কোন অভিভাবক যদি আপনার প্রোফাইলের প্রতি আকৃষ্ট হয় এবং আপনার সাথে যোগাযোগ করে তাদের সন্তানকে আপনাকে পড়ানোর দায়িত্ব প্রদান করবে।

ওয়েবসাইট তৈরী

সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সহজে ইনকাম করার একটি মাধ্যম হলো ওয়েবসাইট তৈরি। আপনি ফ্রী ব্লগার ওয়েবসাইট অথবা কোন হোস্টিং প্রোভাইডার সাথে যোগাযোগ করে টাকার মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। পরবর্তীতে ওয়েবসাইটে গুগল অথবা অন্যান্য যে কোন প্ল্যাটফর্ম এর বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে সেখান থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। এখানে সময় দেওয়া প্রয়োজন তাই আপনি ছাত্র অবস্থায় এই ওয়েবসাইট তৈরি করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে ওয়েবসাইট তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনাকে বিশেষ দিকে নজর রাখতে হবে। আপনি যে বিষয়ে লিখতে পারদর্শী সে বিষয় সম্পর্কে ওয়েবসাইট তৈরি করা জরুরী। কারণ আপনার ওয়েবসাইটের নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে এবং গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল আনতে হবে তানাহলে ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব নয়।

ডেলিভারি ড্রাইভিং

বর্তমানে উবার-পাঠাও ফুডপান্ডা ইত্যাদি অনলাইন ভিত্তিক ডেলিভারি ড্রাইভিং জব রয়েছে যে সকল কোম্পানিতে আপনি খুব সহজেই চাকরি পেতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই সাইকেল অথবা মোটরবাইক চালাতে পারদর্শী হতে হবে এবং নিজস্ব লাইসেন্সপ্রাপ্ত মোটরবাইক থাকতে হবে। ছাত্রজীবনে আপনি অবসর সময়ে সকল কোম্পানির সাথে যুক্ত হয়ে তাদের ডেলিভারি ম্যান হিসেবে কাজ করতে পারেন। যার কারণে আপনি প্রতিমাসে 8000 থেকে 10000 টাকার মত টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফাইভারে গিগ খোলা

ফ্রিল্যান্সিং জগতে ফাইবার গুরুত্বপূর্ণ একটি নাম এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি গিগ প্রদান করে সেখান থেকে ফরেন বায়ারদের কাজ করে দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সাধারণত আপনি যে বিষয়ে দক্ষ সে বিষয়ে দিক দিয়ে আপনার প্রোফাইল ক্রিয়েট করতে হবে।

প্রোফাইল তৈরি হওয়ার পর আপনার প্রোফাইলে ভালো রিভিউ থাকলে বিভিন্ন ক্লায়েন্টরা আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং তাদের কাজগুলো আপনার মাধ্যম দিয়ে করিয়ে নিয়ে টাকা প্রদান করবে। সাধারণত ফাইবার কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আপনার সাথে সম্পাদন হবে এক্ষেত্রে আপনাকে প্রতিটি কাজের 40% প্রদান করা হয়।

নোটস সেল করা

ছাত্রজীবনে যদি আপনি মেধাবী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি হয়তো আপনার এই মেধাকে কাজে লাগিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি অনলাইন মাধ্যম নোটস সেলিং। আপনি যে বিষয়ে পারদর্শী সে বিষয়ে নোট ক্লাস ভিত্তিক যদি নিয়মিত কিছু ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে থাকেন বা ওয়েবসাইটের কাছে বিক্রয় করে থাকেন। তাহলে আপনার প্রতিটি নোট 5 থেকে 6 ডলার পর্যন্ত প্রদান করা হয়ে থাকে যা আপনার ছাত্র জীবনের অন্যতম একটি উৎস হতে পারে।

গ্রাফিক ডিজাইন

কোন আইটি সেন্টার থেকে গ্রাফিক ডিজাইন বিষয়ে একটি কোর্স সম্পন্ন করে আপনার যদি দক্ষতা ভালো হয়ে থাকে তাহলে সেই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির সাথে পার্ট টাইম জব করে সেখান থেকে মাসে 8 থেকে 12 হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব। বিভিন্ন গার্মেন্টস কম্পানি সাধারণত তাদের ফ্যাশান এর ডিজাইন করার লক্ষ্যে graphic-designer খুঁজে থাকে এক্ষেত্রে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ করে। সে সকল কোম্পানির থেকে মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারেন কেননা এই সেক্টরে কাজ করতে আপনার সময় অনেক কম লাগে যার কারণে অল্প সময়ে অনেক টাকা আয় করা সম্ভব।

অনলাইন ব্যবসা

বর্তমানে অফলাইন এর পাশাপাশি অনলাইনে ব্যবসা ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে আপনার যদি ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম একাউন্টে অথবা গ্রুপ থেকে থাকে তাহলে সেই ফেসবুক গ্রুপ অথবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যেকোনো পেজ থেকে আপনার মৌসুমী পণ্যের বিজ্ঞাপন দিয়ে সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

ফেসবুক অথবা ইনস্টাগ্রাম থেকে অনলাইন ব্যবসা করার ক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক অথবা ইনস্টাগ্রাম পেজ এ অবশ্যই 30 হাজারের বেশি লাইক প্রয়োজন অথবা গ্রুপ মেম্বার 50 হাজারের বেশি হওয়া জরুরী যার কারণে আপনার পণ্যের প্রচারণা চালাতে অনেক উপকার হবে।

Related Articles

Back to top button
Close